নির্মাতা

Jarin Chakma

[email protected]

আজিমপুর,ঢাকা

In My Eyes(আমার চোখে)

ভিউ

196

শেয়ার করুন

"In My Eyes (আমার চোখে)" মূলত একটি এক্সপেরিমেন্টাল ডকুমেন্টারি ফিল্ম।যেটি তৈরি হয়েছে করোনাকালীন এক ঘরবন্দী সময়ে অবস্থান করে। এই প্রামাণ্যচিত্রে সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছিল বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থান ও দেশের বাইরে অবস্থানরত ১৮-২৩ বছর বয়সী ১৬জন তরুণ-তরুণীদের। যারা আগামী দিনে দেশকে তুলে ধরবে বিশ্বের মানচিত্রে।যারা হবে বাংলাদেশের ভবিষ্যত কারিগর। এই প্রামাণ্যচিত্রে দেখা যায় জাতি,ধর্ম,বর্ণ নির্বিশেষে বর্তমান তরুণ প্রজন্মের যারা প্রতিনিধিত্ব করে তাদের মাঝে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কেন্দ্র করে মনের ভেতরকার অনুভূতির বহিঃপ্রকাশ।এ যেন এক অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চিন্তায় এগিয়ে যাওয়া বর্তমান প্রজন্ম। এই প্রামাণ্যচিত্রের নির্মাতা নিজেও একজন তরুণ প্রজন্মের প্রতিনিধি।এসাইনমেন্টের সূত্র ধরে তিনি পড়ছিলেন বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বইটি।হঠাৎ,তাকে নাড়া দিয়ে উঠল এক একটি ঘটনা।সে ভাবতে থাকলো আমার এই ভেতরকার অনুভূতির বহিঃপ্রকাশ কেমন হতে পারে?সে আরো ভাবলো আমার মতো যারা তরুণপ্রজন্মের প্রতিনিধি তাদের বঙ্গবন্ধুর প্রতি অনুভূতিগুলোই বা কেমন?যার উত্তর খুঁজতে গিয়ে সে একে একে তার পরিচিতদের থেকে জানতে চাই বঙ্গবন্ধু নিয়ে তাদের আগ্রহ কেমন।কি অভূতপূর্ব সাড়া!যার একটা খণ্ডাংশ দেখা যায় এই প্রামাণ্যচিত্রটিতে। প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ, তাও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর উপর ভিত্তি করে মোটেও সহজ ব্যাপার নয়।তবুও এই তরুণেরা কখনো পিছপা হতে জানে না।হোক শত ভুল,ভুল থেকেই তো শিক্ষা।অদক্ষ হাতে শুরু হলো কাজ।নেই কারো সাথে স্ব শরীরে যোগাযোগ করার অবস্থা,নেই একটা ভালো ভিডিও ক্যামেরা।হাতে আছে একটা মোবাইল ফোন,অনুভূতি মিশ্রিত এক অদম্য চেষ্টা।পরিশেষে নির্মিত হলো এই প্রামাণ্যচিত্রটি।যদিও প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ তার জন্য সম্পূর্ণ নতুন এক অভিজ্ঞতা।আছে অনেক ভুল,অনভিজ্ঞতার ছোঁয়া। তবে পুরো প্রামাণ্যচিত্রে রয়েছে একখন্ড অসাম্প্রদায়িক ভাবনা ও সত্য সহজ অনুভূতির বহিঃপ্রকাশ। এই প্রামাণ্যচিত্রের মাধ্যমে নির্মাতা পুরো দেশের কাছে একটি বার্তা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করেছে - "বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এমন একজন ব্যক্তিত্ব, যাকে অনুসরণ করতে যাকে ভালোবাসতে কোনো নির্দিষ্ট জাতি,ধর্ম,বর্ণ,দল,মতের মানুষ হতে হয় না।"