নির্মাতা

এইচ কে হৃদয়

[email protected]

মোহাম্মাদপুর, ঢাকা- ১২০৭

০১৮১৮৭৭৫১৫৫

আদর্শ

ভিউ

169

শেয়ার করুন

গ্রাম থেকে আসা দরিদ্র পরিবারের ছোট্ট শিশু নাম তার আরিফ । সে তার মায়ের সাথে মাথায় করে ঘুরে ঘুরে পানি বিক্রি করে । এক দিন পানি বিক্রির তার নজরে পড়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর পোস্টার । বঙ্গবন্ধুর স্লোগান ও ভাষণ তার মন কেড়ে নেয় । তার মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে জানার আগ্রহ জন্মায় । এক পর্যায়ে আরিফ বঙ্গবন্ধুর একটি লিফলেট কুড়িয়ে পায় । এই লিফলেটটি পরিস্কার করে পকেটে রেখে দেয় । আরিফ পানি বিক্রির ফাঁকে ফাঁকে বঙ্গবন্ধুর বেপারে জানার জন্য বিভিন্ন মানুর কাছে লিফলেট দেখিয়ে জিজ্ঞাসা করে । কেউ বলে তার নাম বঙ্গবন্ধু, কেউ বলে জাতির জনক আবার কেউ বলে শেখ মুজিবুর রহমান । বঙ্গবন্ধুর এত গুলো নাম শুনে তার সম্পর্কে জানার খুদা আরিফের আরও বেড়ে যায়। এক সময়য় আরিফ তার মা-বাবার কাছে লিফলেট দেখিয়ে বঙ্গবন্ধুর সম্পর্কে জানতে চাইলে তার বাবা-মা বিস্তারিত কিছু বলতে পারে না । আরিফের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু এখন বঙ্গবন্ধু। সে ল্যাম্পোস্টের নিচে বসে বঙ্গবন্ধুর লিফলেট দেখে যায়। এক দিন পানি বিক্রি করার সময়য় আরিফ গাছের নিছে কিছু পথ শিশুদের দেখতে পায় যাঁদেরকে একজন শিক্ষিকা পড়াচ্ছে। আরিফ তখন সেই শিক্ষিকার কাছে গিয়ে বলে আফা আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে জানতে চাই। শিক্ষিকা তখন অবাক হয়ে তাকে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী একটি বই উপহার দেয়। কিন্তু আরিফ তো পড়তে জানে না। আরিফ তার কাছে পড়তে চাইলে শিক্ষিকা বলে সে যেন তার মা অথবা বাবাকে নিয়ে আসে। কিন্তু আরিফের মা-বাবা কেউ রাজি হয় না। কারন আরিফ ছোট মানুষ বলে বলে পানি বেশি বিক্রি করতে পারে। এ জন্য তার মা রাজি হয় না। কিন্তু আরিফ হাল ছেড়ে দেয় নি। বঙ্গবন্ধুকে জানার অদম্য শক্তি তাকে হার মানতে দেয় নি। সে শিক্ষিকার কাছে গিয়ে অনুরোধ করে আর শিক্ষিকা তার আগ্রহ দেখে তাকে পড়ানো শুরু করে। এভাবে ৬ মাস আরিফ কাজের ফাঁকে লুকিয়ে লুকিয়ে পড়ালেখা শিখে এখন সে মোটামুটি পড়তে পারে। এক দিন আরিফ বসে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী বই পড়তে থাকে। তার বাবা-মা দেখে অবাক হয়ে যায়। আরিফ তখন তাদেরকে সব কিছু খুলে বলে। মা-বাবা অনেক খুশি হয় । তারা আরিফকে স্কুলে ভর্তি করার প্রতিজ্ঞা করে। বঙ্গবন্ধুকে জানার ইচ্ছা ও তার আদর্শকে আরিফের মনে প্রানে ধারন করতে পেরে আরিফ জীবন আজ অন্যদিকে মোড় নিয়েছে। তার একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ সামনে অপেক্ষা করছে।